কিভাবে একটি ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করবেন

1
35

আপনি কি একটি ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করতে চান? কিন্তু আপনি জানেন না কিভাবে একটি ওয়েবসাইট তৈরী করতে হয়?

কোনো সমস্যা নাই, ইনশাআল্লাহ আমি আপনাকে শিখাবো কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে একটা পরিপূর্ণ ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করতে হয়।

আমি আপনাকে শিখাবো কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করা যাই। আসলে ওয়েবসাইট তৈরী করার জন্য যত প্রকার প্লাটফর্ম আছে এর মধ্যে সবথেকে সহজ হলো ওয়ার্ডপ্রেস। এটি আপনি কোনো প্রকার কোডিং জ্ঞান ছাড়াই তৈরী করতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।

শুধু ওয়েবসাইট তৈরী করা নয়, বরং আপনি আপনার ইচ্ছামতো এটিকে কাস্টোমাইজ করতে পারবেন।

আমি আপনাকে শিখাবো কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে একটা পরিপূর্ণ ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করতে হয়। কিন্তু আপনি ইচ্ছা করলে আপনার ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করার জন্য অন্য প্লাটফর্ম ব্যবহার করতে পারেন। নিচে কয়েকটা জনপ্রিয় ব্লগিং প্লাটফর্মের নাম তুলে ধরলাম।

wordpress

যতগুলো ব্লগিং প্লাটফর্ম আছে এদের মধ্যে সবথেকে জনপ্রয় হলো ওয়ার্ডপ্রেস। এটি প্রথমত তৈরী করা হয়েছিল ব্লগিং করার জন্য, কিন্তু অধিক জনপ্রিয়তার কারণে এটা এখন পৃথিবীর সবথেকে জনপ্রিয় CMS (Content Management System ) হয়েছে।

ওয়ার্ডপ্রেস দ্বারা আপনি যেকোনো ধরণের ওয়েবসাইট তৈরী করতে পারবেন। যেমন, ই-কমার্স ওয়েবসাইট, ব্লগ ওয়েবসাইট, পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট, কোম্পানি ওয়েবসাইট, মার্কেটপ্লেস ওয়েবসাইট ইত্যাদি।

আপনি দুইভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরী করতে পারেন।

(১) আপনার যদি ডোমেইন এবং হোস্টিং থাকে তাহলে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ডাউনলোড দিয়ে আপনার সার্ভারে ইনস্টল করে তৈরী করতে পারেন। এটাতে আপনি সম্পূর্ণ স্বাধীনতা পাবেন।

(২) আপনি wordpress.com ব্যবহার করে আপনার ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন। এটা সূম্পর্ণ ফ্রি। তবে এটাতে আপনি কোনো স্বাধীনতা পাবেন না। যদি স্বাধীনতা পেতে চান তাহলে আপনাকে প্রতি বছরে প্রায় $48 ডলার বা ৪০০০(চার হাজার) টাকা খরচ করতে হবে।

Wix

wix একটি ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরী করার প্লাটফর্ম। তবে এটাতে আপনি ৫০০ MB স্টোরেজ ও ১ GB ব্যান্ডউইডথ পাবেন এবং এটাতে wix এর ব্র্যান্ডিং থাকবে।

আপনি যদি wix এর ব্র্যান্ডিং সরাতে চান এবং আরো স্টোরেজ বেশি নিতে চান তাহলে আপনার প্রতি মাসে খরচ হবে প্রায় $17 ডলার বা ১৪০০ শত টাকা।

Blogger

ব্লগার হলো গুগলের তৈরী একটা ফ্রি ব্লগিং প্লাটফর্ম। এটা তৈরী হয়েছে শুধুমাত্র ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করার জন্য। এটাও একটা জনপ্রিয় ব্লগিং প্লাটফর্ম তবে এটাতে আপনি পরিপূর্ণ স্বাধীনতা পাবেন না, হয়তোবা আপনার মধ্যে কিছুটা শুন্যতা থেকে যাবে।

যাইহোক, অনেক কথা বলা হয়েগেছে এখন কাজের কোথায় আসি। আমি এখন দেখাবো কিভাবে কোনো রকম কোডিং জ্ঞান ছাড়াই একটা প্রফেশনাল ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করা যায়।

ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করার জন্য আমি সিপ্যানেল (cPanel) হোস্টিং ব্যবহার করবো। আপনি ইচ্ছা করলে অন্য যেকোনো কন্ট্রোল প্যানেল ব্যবহার করতে পারেন যেমন, DirectAdmin অথবা Plesk যেটা আপনার ইচ্ছা। তবে cPanel হলো সবথেকে জনপ্রিয় ওয়েব কন্ট্রোল প্যানেল।

আমরা এখন আমাদের সিপ্যানেলে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল দিবো। ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল দেয়ার জন্য প্রথমে এখান থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ডাউনলোড করেনিন।

ওয়ার্ডপ্রেস ডাউনলোড হয়ে গেলে এখন আপনি আপনার ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে সিপ্যানেলে লগইন করুন।

সিপ্যানেলে লগইন করার পর ফাইলম্যানেজারে ঢুকে যেখানে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করতে চান সেখানে ওয়ার্ডপ্রেস আপলোড করুন। নিচের ছবিগুলো দেখুন।

আপলোড হয়ে গেলে এখন ওয়ার্ডপ্রেস Extract করুন। এবং Extract হওয়ার পর ওয়ার্ডপ্রেস ফোল্ডারে ঢুকে সকল ফাইলগুলি মুভ করে যেখানে ওয়ার্ডপ্রেস আপলোড করেছিলেন সেই ডিরেক্টরিতে নিয়ে আসুন। নিচের ছবিগুলি দেখুন।

সবকিছু ঠিকঠাক ভাবে করলে এখন আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল হওয়ার জন্য প্রস্তূত। এখন আপনার ডোমেইন নাম লিখে ব্রাউজারে সার্চ দিন। দেখবেন নিচের মতো আসবে। সেখান থেকে Continue দিন। এবং পরবর্তী ধাপগুলি অনুসরণ করুন।

আপনি যদি পূর্বেই ডাটাবেস তৈরী করে রাখেন তাহলে নিচের ঘর গুলি সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করুন। আর আপনি যদি ডাটাবেস তৈরী করে না থাকেন, তাহলে আমাদের পূর্বের আর্টিকেল কিভাবে cPanel থেকে ডাটাবেস তৈরী করতে হয় দেখে আসুন।

  • Database Name: এখানে আপনি আপনার ডাটাবেস এর নাম দিন।
  • Username: এখানে আপনার ডাটাবেস এর ইউজারনেম দিন।
  • Password: এখানে আপনার ডাটাবেস এর পাসওয়ার্ড দিন।
  • Database Host: এখানে হোস্টনেম localhost দেয়া আছে ঐটাই থাক।
  • Table Prefix: wp_ দেয়া আছে ঐটাই থাক অথবা আপনি চাইলে আপনার ইচ্ছামতো দিতে পারেন।

আপনি যদি সঠিকভাবে ডাটাবেস এর তথ্য দিতে পারেন তাহলে পরবর্তী পেজ আসবে সেখান থেকে “Run the installation এ ক্লিক করুন।

এরপর আপনাকে পরবর্তী পেজে নিয়ে যাবে। এই পেজে আপনি আপনার ওয়েবসাইট এর তথ্য দিয়ে পূরণ করুন এবং “Install WordPress” বাটনে ক্লিক করুন দেখবেন ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল শুরু হয়ে গেছে… এখন কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন। নিচের ছবিটি দেখুন তারপর বিস্তারিত বলছি।

  • Site Title: এখানে আপনার ওয়েবসাইট এর টাইটেল বা শিরোনাম দিবেন। আপনার ওয়েবসাইট এর টাইটেল বা শিরোনাম আপনি পরবর্তী সময়েও পরিবর্তন করতে পারবেন।
  • Username: এটা হলো আপনার ইউজারনেম। আপনি যখন ওয়েবসাইটে লগইন করবেন তখন এটার প্রয়োজন হবে। সুতরাং সুন্দর একটা ইউজারনেম দিন।
  • Password: এটা হলো আপনার পাসওয়ার্ড। আপনি যখন আপনার সাইটে লগইন করবেন তখন এটা প্রয়োজন হবে। ডিফল্ট ভাবে ওয়ার্ডপ্রেস আপনাকে একটা পাসওয়ার্ড দিবে আপনি এটা পরিবর্তন করে আপনার ইচ্ছামতো দিতে পারেন। মনে রাখবেন, সবসময় কঠিন পাসওয়ার্ড দিবেন এবং মনে রাখবেন।
  • Your Email: এখানে আপনার ইমেইল ঠিকানা দিবেন। আপনার যদি একাধিক ইমেইল থাকে, তাহলে যে ইমেইলটি সবসময় চালু থাকে সেটি দেয়ার চেষ্টা করবেন।
  • Search Engine Visibility: এটার মানে হলো, আপনি যদি এটিতে টিক দেন তাহলে সার্চইঞ্জিন অর্থাৎ গুগলে এটি পাবলিশ হবেনা। সুতরাং এটিতে টিক দেয়ার কোনো প্রয়োজন নাই।

অভিনন্দন! আমরা ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল দিয়েছি এবং আমাদের ওয়েবসাইট এখন সম্পূর্ণ প্রস্তুত। এখন আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে লগইন করবো ইনশাআল্লাহ। নিচের ছবিটি দেখুন।

এখন আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে লগইন করবো। এখন আমরা ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল দেয়ার সময় যে ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়েছিলাম সেটি দিয়ে লগইন করবো।

এখন ” Username or Email Address” এর ঘরে আপনার ইউজারনেম বা ইমেইল দিন ও “Password” এর ঘরে আপনার পাসওয়ার্ড দিন এবং লগইন বাটনে ক্লিক করুন।

স্বাগতম! আমরা সঠিকভাবে আমাদের ওয়েবসাইটে লগইন করতে পেরেছি। উপরে যে ছবিটা দেখছেন এটা হলো ওয়ার্ডপ্রেস এর ড্যাশবোর্ড। এখান থেকেই আমরা আমাদের ওয়েবসাইট পরিচালনা করবো।

এখন আমরা দেখবো কিভাবে পোস্ট করতে হয়। পোস্ট করার জন্য বাম দিকের মেনু থেকে Posts >>Add New মেনুতে ক্লিক করুন।

এখন দেখুন নতুন একটা পেজ এসেছে এখানেই আমরা আমাদের পোস্ট লিখবো। নিচের ছবিটি দেখুন আশাকরি সবকিছু বুঝতে পারবেন।

যাইহোক, আর্টিকেলটি অনেক বড়ো হয়েগেছে। আশাকরি সবকিছুই বুঝতে পড়েছেন। যদি কোনোকিছু না বুঝে থাকেন তাহলে কমেন্ট করুন।

ওয়ার্ডপ্রেস এর ড্যাশবোর্ড পরিচিতি জানার জন্য আপনি আমার অন্য আর্টিকেলটি পড়তে পারেন। এবং অন্য আরেকটি পোস্ট কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস থিম কাস্টোমাইজ করতে হয় পড়তে পারেন।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যকে জানার সুযোগ করে দিন। পরবর্তী আর্টিকেল দেখার আমন্ত্রণ জানিয়ে আজকের মতো বিদায় নিচ্ছি, আল্লাহাফেজ।

1 COMMENT

একটি কমেন্ট করুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here