সারাদিন একটি ডেস্কে বসে থাকার পরও কীভাবে সুস্থ থাকবেন

সারাদিন একটি ডেস্কে বসে থাকার পরও কীভাবে সুস্থ থাকবেন

আমরা প্রতিদিনই অফিস বা অন্য কোনো কাজে দীর্ঘ সময় ডেস্কে বোসে কাটিয়ে দেয়। কিন্তু আমরা জানিনা যে, দীর্ঘ সময় একটি ডেস্কে বসে সময় কাটানো আমাদের শরীরের পক্ষে কতোটা ক্ষতিকারক হতে পারে।

তবে চিন্তার কোনো কারণ নেই, আপনার শরীর সুস্থ রাখার জন্য চাকরি ছেড়ে দেয়ার কোনোই দরকার নেই। শরীর সুস্থ রাখার জন্য এখানে কয়েকটা সহজ সমাধান তুলে ধরলাম। এগুলি নিয়মিত অনুশীলন করার চেষ্টা করুন।

প্রতিদিন স্বাস্থকর খাবার খান:

আমরা সবাই জানি যে, ভালো খাবার খেলেই শরীর ভালো থাকে। কিন্তু না, শুধু ভালো খাবার খেলেই শরীর স্বাস্থ ভালো হয়না। এই ভালো খাবারটা আপনি যখন নিয়মিত যথাসময়ে খাবেন, ঠিক তখনি আপনার শরীর স্বাস্থ ভালো হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।

  • অল্প খাবার খান: আমরা অনেকেই মনে করি যে, বেশি খাবার খেলেই মনেহয় স্বাস্থ ভালো হয়। আসলে আমাদের এই ধারনাটা ভুল। শরীর সুস্থ রাখার জন্য আপনাকে অবশ্যই কম এবং পরিমিত খাবার থেকে হবে।
  • খাবারের রুটিন করুন: আপনার উচিত হবে নিয়মিত যথাসময়ে খাবার খাওয়ার জন্য একটা রুটিন তৈরী করা। যাতে শতব্যাস্ততার মাঝে থেকেও আপনি সময়মতো খাবার খেতে পারেন।
  • দুধ খান: প্রতিদিন অল্প পরিমান দুধ খাওয়ার অভ্যাস করুন। তবে দুধ খাওয়ার ব্যাপারে সতর্ক হতে হবে, বেশি গাঢ় দুধ খাবেননা। সবসময় চেষ্টা করবেন পাতলা দুধ খাওয়ার। পাতলা দুধ শরীরের জন্য খুবই উপকারী।

প্রচুর পানি পান করুন:

সুস্থ থাকার প্রধান চাবিকাঠি হলো পানি। সুতরাং সুস্থ থাকতে হলে আপনাকে প্রচুর পরিমানে পানি পান করতে হবে। কথাই আছে, পানির ওপর নাম জীবন।

আপনি যদি পানি কম পান করেন তাহলে শরীরে পানি শুন্যতা দেখা দিতে পারে। পানি শুন্যতা একটি কঠিন রোগ। সুতরাং ইটা থেকে এড়াতে আপনাকে প্রচুর পানি পান করতে হবে।

প্রতি ঘন্টায় বিরতি নিন:

আপনার কাজের ফাঁকে প্রতি ঘন্টায় একবার করে বিরতি নিন। এটা আপনাকে সুস্থ থাকতে অনেকটা সাহায্য করবে। প্রতি ঘন্টায় সতর্ক হওয়ার জন্য প্রয়োজনে আপনার ল্যাপটপ বা মোবাইলে রিমাইন্ডার বা এলার্ম সেট করে রাখুন।

নিয়মিত ঘুমান:

সুস্থ থাকার আরো একটা প্রধান চাবিকাঠি হলো নিয়মিত ঘুমানো। সুস্থ থাকতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিয়মিত ঘুমাতে হবে। অনেকেই আছে কাজের চাপে ঠিকমতো ঘুমাইনা যার করনে বরধরনের কঠিন রোগের মুখোমুখি হতেহয়।

নিয়মিত ব্যায়াম করুন:

শরীরকে সুস্থ রাখার জন্য আপনাকে নিয়মিত ব্যায়াম করা উচিত। কমকরে হলেও আপনাকে প্রতিদিন সকালে ৩০ মিনিট ব্যায়াম করতে হবে। আপনি ৩০ মিনিটকে ১০ মিনিট করে তিনটা ভাগ করে নিতে পারেন।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন জগতে পারে যে, কিভাবে ব্যায়াম করবো? আসলে ব্যায়াম করার জন্য আপনি হাটতে পারেন, দৌড়াতে পারেন, খেলাধুলা করতে পারেন অথবা আপনি নাচতেও পারেন। এগুলা সবই ব্যায়াম এর মধ্যে পড়ে।

শেষ কথা: পরিপূর্ণ সুস্থ থাকতে হলে এবং দুনিয়া ও আখেরাতে সফলকাম হতে হলে নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার অভ্যাস করুন।

আজকের মতো এই পর্যন্তই। পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যকে জানতে সাহায্য করুন।

তোফায়েল আমিন।